শান্তকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন নান্নু!

শান্তকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন নান্নু!

লম্বা সময় পর বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নির্বাচক পদে আসছে পরিবর্তন। আলোচনা আর সমালোচনায় ঠাসা মিনহাজুল আবেদিন নান্নুর পর্ব শেষ হচ্ছে চলতি মাসেই। বাংলাদেশ দলের নতুন প্রধান নির্বাচক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন গাজী আশরাফ হোসেন লিপু। আনুষ্ঠানিকভাবে আগামী মার্চের প্রথম দিন থেকে দায়িত্ব নেবেন তিনি।

লিপু দায়িত্বে আসবেন মার্চ থেকে। যে কারণে এখনো প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। নির্বাচকের পাশাপাশি পরিবর্তন আসছে অধিনায়ক নিয়েও। সাকিব আল হাসানকে সরিয়ে তিন ফরম্যাটের বাংলাদেশের নতুন অধিনায়ক হয়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত।

শান্তর উত্থানে বড় ভূমিকা আছে নান্নুর। লম্বা সময়ের ব্যর্থতার পরেও শান্তর ওপর ভরসা রেখেছিলেন জাতীয় দলের সাবেক এই তারকা। শান্তও নিজেকে প্রমাণ করেছেন। হয়েছেন তিন ফরম্যাটের অধিনায়ক। নান্নু বিশ্বাস করেন নতুন এই অধিনায়ক বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন।

বিপিএল চলাকালে গতকাল চট্টগ্রামে গণমাধ্যমে নান্নু বলেন, ‘সবার সমর্থন দরকার, বাংলাদেশ ক্রিকেটকে এগিয়ে নিতে সম্মিলিত প্রচেষ্টা দরকার। আশা করছি শান্ত দায়িত্বে আছে, নিজের দায়িত্ব পুরোপুরি পালন করবে এবং বাংলাদেশের ক্রিকেটকে আরও সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবে।’

তানজিদ তামিমকে বিশ্বকাপ চলে নিয়ে এসেছিলেন নান্নু। বিশ্বকাপে খুব বেশি ভাল না করলেও, এই বিপিএলে আছেন ছন্দে। গতকাল (মঙ্গলবার) পেয়েছেন সেঞ্চুরি। নান্নু বলেন, ‘এখানে অনেকগুলো খেলোয়াড় ভালো খেলেছে। আজকে তো তানজিদ তামিম দারুণ ব্যাটিং করেছে। ধারাবাহিকভাবে একটা জায়গায় পারফর্ম করা খুবই ‍গুরুত্বপূর্ণ। এই অভিজ্ঞতাগুলো যদি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সুযোগ পায় তাহলে কাজে লাগাতে পারবে। অনেকগুলো খেলোয়াড়কে যথেষ্ট ভালো লেগেছে। তরুণ ক্রিকেটাররা বড় একটা প্লাটফর্মে সুযোগ পেয়েছে, আরও সুযোগ পাবে এবং নিজেকে মেলে ধরবে। জাতীয় দলে যদি সুযোগ পায় তাহলে প্রতিষ্ঠিত করার সুযোগ পাবে।’

দীর্ঘদিন ইনজুরি কাটিয়ে বিপিএল দিয়ে ফেরা সাইফউদ্দিনকে নিয়েও আশাবাদী নান্নু, ‘অনেকদিন কিন্তু ইনজুরির জন্য বাইরে ছিল প্রায় ৮ মাসের মতো। এখন ফিরে এসেছে। দুটো-তিনটে ম্যাচ দেখে একজনের ফিটনেস যাচাই করা যায় না। ওকে একটু সময় দিতে হবে এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার জন্য ক্রাইটেরিয়াটাও ঠিক করবে টিম ম্যানেজমেন্ট। সুতরাং একটু সময় তো অবশ্যই দিতে হবে। আরও কিছু ম্যাচ দরকার।’