মোবাইল নাম্বার দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র বের করার নিয়ম

অনেকেই আছেন যারা মোবাইল নাম্বার দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র বের করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চান। তাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা জানেন না যে কিভাবে মোবাইল নাম্বার দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র বের করা যায়।  অনেকে আছেন সকল বিষয়ে জানার জন্য কিন্তু গুগলের মাধ্যমে সার্চ করে থাকেন। এই পোস্টটি সম্পন্ন পড়ুন তাহলে আশা করি  মোবাইল নাম্বারে জাতীয় পরিচয় পত্র বের করার নিয়ম, নাম্বার দিয়ে আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম ও পুরাতন আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে পারবেন।

মোবাইল নাম্বার দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র বের করার নিয়ম

যারা মোবাইল নাম্বার দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই বা ডাউনলোড সম্পর্কে জানতে চান।  মোবাইল নাম্বার  দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র বের করা নিয়ম বলতে জন্ম নিবন্ধন করার সময় আপনারা যে নাম্বার ব্যবহার করেন শুধু সেই নাম্বার দিয়ে কিন্তু জাতীয় পরিচয় পত্র বের করতে পারবেন। তো যাই হোক এই নাম্বার দিয়ে কিভাবে জাতীয় পরিচয় পত্র বের করবেন। মোবাইল দিয়ে এসএমএস এর মাধ্যমে যদি এন আইডি বা জাতীয় পরিচয় পত্রের নম্বর বের করতে চান, তাহলে প্রথমে  এসএমএস অপশনে গিয়ে sc <..> c <..> f <..> স্লিপ নাম্বার <..> d <..> ৪ সংখ্যার জন্ম সাল <-> ২ খ্যার জন্ম সাল, এ সকল কিছু  ঠিকঠাক হওয়ার পরে ১০৫নম্বরে সেন্ড করুন।

তো তাহলে চলুন  এখন দেখে নেই মোবাইল নাম্বার  দিয়ে অনলাইনের মাধ্যমে জাতীয় পরিচয় পত্র বের করার নিয়ম। প্রথমে মোবাইল নাম্বার ও ভোটার আইডি কার্ডের স্লিপ নাম্বার দিয়ে নির্বাচন কমিশনের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট রয়েছে, সেই ওয়েবসাইটটির নাম হচ্ছে https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/claim-account এই ওয়েব সাইটটিতে ঢুকে  নিতে হবে।  পরবর্তীতে এই ওয়েবসাইটটিতে কিছু ঘর থাকবে সেই ঘরগুলো পূরণ করে সম্পূর্ণ কাজ শেষ করে সেন্ট বাটনে ক্লিক করে জেনে  নিতে পারবেন  জাতীয় পরিচয় পত্রের সকল তথ্য সম্পর্কে।

নাম্বার দিয়ে আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম

নাম্বার দিয়ে আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম, আপনারা উপরে দুইটি নিয়ম দেখেছেন একটি হচ্ছে মোবাইলে এসএমএস এর মাধ্যমে আইডি কার্ড বের করার নিয়ম এবং আরেকটি হচ্ছে মোবাইল দিয়ে অনলাইনের মাধ্যমে আইডি কার্ড বের করার নিয়ম। তো এখন নিজের নম্বর দিয়ে কিভাবে আইডি কার্ড বের করা যায় চলুন তাহলে দেখে নেওয়া যায়। নাম্বার বলতে বোঝায় আপনারা যে ভোটার আইডি কার্ডের সময় যে নাম্বারটি ভোটার আইডি কার্ড ব্যবহার করেছেন। সেই নাম্বার দিয়ে এসএমএস এর মাধ্যমে ও সেই নাম্বার দিয়ে ভোটার আইডি কার্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে ঢুকেও  আপনারা আপনাদের আইডি কার্ড চেক করতে পারবেন।

পুরাতন আইডি কার্ড চেক করুন অনলাইনে

অনেকেই আছেন যারা অনলাইনের মাধ্যমে কিভাবে পুরাতন আইডি কার্ড চেক করা যায় এ বিষয়ে জানতে চান তো সেই ক্ষেত্রে কি করতে হবে। আপনারা উপরে যে নিয়মটি দেখেছেন যেমন এনআইডি কার্ডের যে অফিশিয়াল ওয়েবসাইটটি আছে। সেই ওয়েবসাইটটিতে গিয়ে আপনারা আপনাদের সকল  তথ্যগুলো ঠিকঠাক মত দিয়ে শুধু জন্ম সাল ও তারিখের মধ্যে সেই পুরাতন  জন্ম সাল তারিখ দিয়ে  দিলেই আপনারা আপনাদের সেই পুরাতন আইডি কার্ড সম্পর্কে সকল তথ্য পেয়ে যাবেন।

তবে বর্তমানে যারা পুরাতন আইডি কার্ড চেক করতে চাচ্ছে না অনলাইনের মাধ্যমে এক্ষেত্রে কিছু নিয়ম রয়েছে যেমন ২০১৬-২০১৭ সালে যারা ভোটার হয়েছেন তাদের ক্ষেত্রে এই পুরাতন আইডি কার্ড দেখা সম্ভব না। এর আগের পুরাতন আইডি কার্ড গুলো খুব সহজে দেখতে পারবেন কিন্তু ২০১৬-২০১৭ পরেও  যারা আইডি কার্ড করেছেন তারাও দেখতে পারবেন। তো আশা করি আপনারা এ বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন।

Scroll to Top